রামগঞ্জ প্রেসক্লাবের ইতিহাস

জাতীয় বিশেষ

Sharing is caring!

ইব্রাহীম ইশান: ১৯৯৬ ইং সালের ১৯ই জুন প্রতিষ্ঠিত হয় রামগঞ্জ প্রেসক্লাব। প্রেসক্লাবের গঠনতন্ত্র যুগ পরিবর্তন ও সময়ের প্রয়োজনে ২০২০ইং সালে পূনগঠন করা হয়। সংবাদকর্মী সীমিত থাকায় ১৯৯৬ইং সালের ১৯ ই জুন একটি গঠনতন্ত্র তৈরি করে মরহুম ওবায়দুল হক সভাপতি ও আবু ছায়েদ মোহন সাধারন সম্পাদক হয়ে রামগঞ্জ প্রেসক্লাব নামের এ সংগঠনটি প্রতিষ্ঠিত হয়।

কালের বিবর্তনে দেশে সবকিছুর পরিবর্তন হলেও এ গঠনতন্ত্র পরিবর্তন সম্ভব না হওয়ায় সাংবাদিক এবং প্রেসক্লাবের নিয়ন্ত্রন কিছু ব্যবসয়ী ও একটি কুচক্রী মহলে নিয়ন্ত্রণে চলতে থাকে। দীর্ঘ ৯ বছর পর ২০০৫ ইং সালের ২৭ মে জেলা প্রশাসকের হস্তক্ষেপ ফের কমিটি হয় । কমিটিতে পুনরায় সভাপতি ওবায়দুল হক ও সাধারণ সম্পাদক আমির হোসেন আমু নির্বাচিত হয়।
২০০৭ সালে ৩০শে জুনের নির্বাচনে ওবায়দুল হক সভাপতি ও ফরিদ আহমেদ বাঙ্গালী সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়।
এরপর ২০০৯ সালের ৩০ জুলাই অধিকাংশ সাংবাদকিদের বাহিরে রেখে কৌশলে গুটি কয়েকজন সাংবাদিক কিছু ব্যবসায়ীদের সদস্য করে একটা নির্বাচন করে যাহাতে এসএম বাবর সভাপতি ও একেএম মিজানুর রহমান মুকুলকে সাধারণ সম্পাদক করা হয়। এর ১ সপ্তাহ পরই এই অনিয়মের বিরুদ্ধে কয়েকজন সাংবাদিক লক্ষ্মীপুর চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন। আদালত রামগঞ্জ প্রেসক্লাবের সকল কার্যক্রম স্থগিত করেন। এরপরই রামগঞ্জ প্রেসক্লাবটি ছিন্নভিন্ন হয়ে যায়। অনেকে সাংবাদিক পেশা ছেড়ে অন্য পেশায় চলে যায়, আবার অনেকে রামগঞ্জ উপজেলা ছেড়ে লক্ষ্মীপুর জেলাসহ দেশের বিভিন্ন জায়গায় সাংবাদিকতা করে। আবার অনেকে লক্ষ্মীপুর এবং জাতীয়প্রেসক্লাবের সদস্য হয়।
এমতাবস্থায় দীর্ঘ ১২ বছর পর রামগঞ্জ প্রেসক্লাবটির পুনরায় কার্যক্রম চালু করার জন্য প্রতিষ্ঠাকালীন সভাপতি ওবায়দুল হক জীবিত না থাকায় প্রতিষ্ঠাকালীন সাধারণ সম্পাদক আবু ছায়েদ মোহন গত ২৪ শে সেপ্টেম্বর ২০২০ইং রামগঞ্জে কর্মরত সকল সাংবাদিকদের নিয়ে জরুরি সভা করেন।
সভায় সকলের সম্মতিতে পূর্বের কমিটির অর্থ সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন জাহাঙ্গিরকে আহবায়ক, সহ-সভাপতি বেলায়েত হোসেন বাচ্ছুকে যুগ্ম আহবায়ক, দপ্তর সম্মাদক হালিম খান লিটনকে যুগ্ম আহবায়ক করে ৫ সদস্য বিশিষ্ট কমিটির একটি আহবায়ক কমিটি গঠন করা হয়। তাহাদের দায়িত্ব দেওয়া হয় যে বর্তমান সময়ের প্রয়োজনে এমন কিছু ধারা ও বিধিমালা সংযোজন ও বিয়োজন করে গঠনতন্ত্রটি প্রনয়ন করে যাহারা এ পেশা ছেড়ে দিয়েছে অথবা রামগঞ্জ উপজেলার বাহিরে অন্যত্রে সাংবাদিক পেশায় কর্মরত অথবা অন্য কোথাও সাংবাদিকদের কোন সংগঠনের সাথে জড়িত হলে তাহাদের সদস্য পথ বাতিল এবং বিভিন্ন জাতীয় দৈনিক পত্রিকা রামগঞ্জে প্রতিনিধি হিসেবে দীর্ঘ কয়েকবছর যাবৎ কাজ করে আসছেন তাহাদের সদস্য করে ৯০ দিনের মধ্যে নির্বচন দিয়ে একটি পূর্নাঙ্গ কমিটি গঠনের জন্য।

১লা অক্টোবর ২০২০ইং আহবায়ক কমিটি একটি জরুরী সাধারণ সভা করেন। সভায় কিছু ধারা ও বিধিমালা সংযোজন ও বিয়োজন করে গঠনতন্ত্রটি প্রনয়ন করেন। প্রনয়নকৃত গঠনতন্ত্র অনুযায়ী প্রতিষ্ঠাকালীন প্রধান উপদেষ্টার বিরুদ্বে বিভিন্ন অভিযোগ থাকায় এবং দীর্ঘ ১২ বছর তিনি এবং অন্য দুইজন উপদেষ্টা রামগঞ্জ প্রেসক্লাব বা রামগঞ্জের কর্মরত সাংবাদিকদের যোগাযোগ না রাখায় তিনজনকে অভ্যাহতি দিয়ে বাংলাদেশ জার্নালের প্রকাশক ড, আনোয়ার খানকে প্রধান উপদেষ্টা এবং শিক্ষাবিদ ও কলামিষ্ট মঞ্জুরুল হক ফারুক ও রামগঞ্জ প্রেসক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক প্রবীন সাংবাদিক আবু ছায়েদ মোহন সহ তিনজন কে সাংবাদিকদের কল্যানে উপদেষ্টা করা হয়।
এবং যাহারা এ পেশা ছেড়ে দিয়েছে অথবা রামগঞ্জের বাহিরে অন্যত্রে সাংবাদিক পেশায় কর্মরত তাহাদের সদস্য পথ বাতিল এবং বিভিন্ন জাতীয় দৈনিক পত্রিকা রামগঞ্জে প্রতিনিধি হিসেবে কর্মরতদের সদস্য করা হয়।
১৯ ডিসেম্বর ২০২০ইং গঠনতন্ত্র মোতাবেক সকল সদস্যদের অংশগ্রহনমূলক একটি নির্বাচন হয়। যেখানে দৈনিক ইত্তেফাক জাকির হোসেন মোস্তান সভাপতি,দৈনিক মানবকন্ঠ সাখাওয়াত হোসেন জাহাঙ্গির সহ-সভাপতি, দৈনিক ভোরের কাগজ,বাংলাদেশ জার্নাল মোঃকাউছার হোসেন সাধারন সম্পাদক,দৈনিক যায়যায়দিন বেলায়েত হোসেন বাচ্ছু যুগ্ম সাধারন সম্পাদক,দৈনিক মানবজমিন মোঃ আবু তাহের অর্থ ও দপ্তর সম্পাদক,প্রতিদিনের সংবাদ তৌহিদুল ইসলাম কবির প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক, দৈনিক খোলা কাগজ হালিম খান লিটন ক্রীয়া ও সাংস্কুতিক সম্পাদক,ইংরেজি ডেইলি সান,বাংলাদেশের খবর রহমত উল্যাহ পাটোওয়ারী কার্য নির্বাহী সদস্য, দৈনিক গণমুক্তি,দৈনিক জনতা আউয়াল হোসেন সদস্য,দৈনিক সমকাল জাকির হোসেন সুমন সদস্য,দৈনিক স্বাধীন সংবাদ ইকবাল হোসেন শান্তসহ ১১ সদস্য বিশিষ্ট কার্যনির্বাহী কমিটি গঠন করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *